Ticker

6/recent/ticker-posts

গুগল অ্যাকাউন্ট থেকে Trusted ডিভাইস রিমুভ করুন



 অ্যাকাউন্ট থেকে কিভাবে ট্রাস্টেড ডিভাইস রিমুভ করতে হয় তা জানবেন এই আর্টিকেলে।  গুগল ট্রাস্টেড ডিভাইস ফাংসনের মাধ্যমে কিছু এক্সট্রা সুবিধা আপনি নিতে পারেন।

যেমন, আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্টে যদি 2-Step Verification চালু করেন এবং কোথাও লগিন করতে চান তবে  আপনার ফোন নাম্বার অথবা ট্রাস্টেড ডিভাইসে একটি মেসেজ চলে যায়। এ ক্ষেত্রে ট্রাস্টেড ডিভাইস হলো দ্বিতীয় মাধ্যম 2-Step Verification আনলক করার জন্য।

তো, মাঝে মাঝে প্রয়োজন হয় আমাদের ডিভাইস টি বিক্রয় করে দিতে। অথবা অন্য কাউকে দিতে। এমতাবস্থায় আপনার ফোনটি যদি আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্টের জন্য “ট্রাস্টেড” হয়ে থাকে তবে আপনার ক্ষতির সম্ভাবনা থাকতে পারে। এক্ষেত্রে ফোনটি ট্রাস্টেড থেকে ডিলিট করতে হবে।

এখানে আমি খুবই সহজ পদ্ধতি দিচ্ছি যার সাহায্যে যেকোনো ডিভাইস কে ট্রাস্টেড থেকে ডিলিট করতে পারেন। 

আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনটি ব্যবহার করে করতে চাইলে নিচের স্টেপ ফলো করুন।
স্টেপ ১: অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস এর সেটিংসে যেতে হবে। এর পরে Google অপসন টিতে ক্লিক করতে হবে।

স্টেপ ২: এবার Manage Your Google Account এ ক্লিক করে অ্যাকাউন্ট সেটিংস ওপেন করতে হবে। আপনার ফোনে যদি একাধিক ইমেইল থাকে তবে উপরের ইমেইলে(যেখানে আমি ক্লিক করতে বল্লাম তার উপরের) ক্লিক করে ইমেইল টি পরিবর্তন করে নিন।

স্টেপ ৩: Security ট্যাবে ক্লিক করুন। এবং To-Step Verification এ ক্লিক করুন।

স্টেপ ৪: আবার পাসওয়ার্ড চাইতে পারে। পাসওয়ার্ড দেওয়ার পরে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন সেটিংস চালু হবে। নিচে স্ক্রোল করুন এবং "Device You Trust" হেডার টির নিচে Revoke All বাটনে ক্লিক করুন। না বুঝলে স্ক্রিনশট দেখুন।

ডেক্সটপ ব্রাউজার কিংবা আলাদা কোনো ডিভাইস  থেকে করতে চাইলে নিচের স্টেপ গুলো ফলো করুন। 
স্টেপ ১: সর্বপ্রথম ফোনের গুগল ক্রোম ব্রাউজার ওপেন করুন। এবং সার্চ বারে Google Account লিখে সার্চ করুন। Google Account নামে একটি লিংক দেখতে পাবেন সেটাতে ক্লিক করুন।


স্টেপ ২: লগিন করা না থাকলে ইমেইল অ্যাড্রেস ও পাসওয়ার্ড ব্যাবহার করে লগিন করে নিন।
এখন উপরের স্টেপ ৩ এবং স্টেপ ৪ ফলো করুন। এর ফলে আপনি ব্রাউজারেও সেটা করতে সক্ষম হবেন।

ব্যাস! এইটুকুই। এর ফলে যেসব ডিভাইস ট্রাস্টেড ছিল, সব রিমুভ হয়ে যাবে।

আশা করি এই টিউটোরিয়ালটি বুঝতে আপনার কোনো অসুবিধা হয়নি। তাহলে এবার কাজে লেগে পড়ুন। আর আমার ওয়েবসাইট Nanoblog  নিয়মিত ভিজিট করতে ভুলবেন না। আল্লাহ হাফেজ।

Post a Comment

1 Comments